শিরোনাম:
ঢাকা, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১

Daily Somoy BD
বুধবার ● ১৫ মে ২০২৪
প্রথম পাতা » অর্থ বাণিজ্য » কেরু’জ চিনিকলে চাকুরী স্থায়ীকরণে মুক্তিযোদ্ধার কোটা সংরক্ষণ না করায় কর্মরত শ্রমিক কর্তৃক লিগ্যাল নোটিস
প্রথম পাতা » অর্থ বাণিজ্য » কেরু’জ চিনিকলে চাকুরী স্থায়ীকরণে মুক্তিযোদ্ধার কোটা সংরক্ষণ না করায় কর্মরত শ্রমিক কর্তৃক লিগ্যাল নোটিস
৭৬ বার পঠিত
বুধবার ● ১৫ মে ২০২৪
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

কেরু’জ চিনিকলে চাকুরী স্থায়ীকরণে মুক্তিযোদ্ধার কোটা সংরক্ষণ না করায় কর্মরত শ্রমিক কর্তৃক লিগ্যাল নোটিস

---

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি :১৪-০৫-২৪

দেশের ঐতিহ্যবাহী কেরু’জ চিনিকলের বিভিন্ন বিভাগে কর্মরত অস্থায়ী শ্রমিকদের চাকুরী স্থায়ীকরণে সম্প্রতি চিনিকল কর্তৃপক্ষ একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। এ বিজ্ঞপ্তিতে চাকুরী স্থায়ীকরণে মুক্তিযোদ্ধার কোটার কথা উল্লেখ করা হয়নি। এতে প্রতিষ্ঠানে কর্মরত মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের চাকুরী স্থায়ী হওয়া নিয়ে দেখা দিয়েছে সংশয়। এ বিষয়ে এক মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ও চিনিকলের উৎপাদন বিভাগে কর্মরত মৌসুমী ফিল্টার প্রেস হেলপার অস্থায়ী শ্রমিক বাবুল আকতার ১২ মে রবিবার কেরুজ চিনিকলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বারাবর একটি লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন।

প্রেরিত নোটিশে বলা হয়েছে সম্প্রতি চিনিকল কর্তৃপক্ষ চিনিকলে কর্মরত বিভিন্ন বিভাগে মৌসুমী জনবলদ্বারা স্থানীয় শূণ্য পদে শ্রমিকদের চাকুরী স্থায়ীকরণে চিনিকল কর্তৃপক্ষ একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন। এ বিজ্ঞপ্তিতে চিনিকলে কর্মরত মুক্তিযোদ্ধা সন্তানের ক্ষেত্রে রাখা হয়নি সরকার নির্ধারিত মুক্তিযোদ্ধা কোটা সংরক্ষনের কোন ব্যবস্থা।

এতে প্রতিষ্ঠানে কর্মরত মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের স্থানীয় শূণ্য পদে সমন্বয়ে স্থায়ী হওয়া নিয়ে দেখা দিয়েছে নানা সংশয় ও হতাশা। ফলে সরকারী নিয়মকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে বিভিন্ন বিভাগে মৌসুমী জনবলদ্বারা চিনিকলে স্থানীয় শূণ্য পদে  সমন্বয় হওয়া নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা কোটা না রাখায় আর্থিক ও মানষিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার আশঙ্কায় কেরু’জ চিনিকলে অস্থায়ী শ্রমিক মুক্তিযোদ্ধার সন্তান বাবুল আক্তার চুয়াডাঙ্গা আদালতের মারফতে কেরু এন্ড কোম্পানীর ব্যবস্থাপনা পরিচালক বরাবর একটি লিগ্যাল নোটি পাঠিয়েছেন। নোটিশে বলা হয়েছে কেরুজ চিনিকলের মৌসুমী জনবল স্থায়ী ভাবে সমন্বয় করনে যথাযথভাবে সরকারি বিধি অনুসরণ ও মুক্তিযোদ্ধা কোটা সংরক্ষণ করা হবে। এর অন্যথা হলে মিলের ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে উপযুক্ত আদালতে একাধিক মামলা আনয়ন করা সহ জেলার সকল বীর মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের পক্ষ থেকে সম্ভব সবধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ ব্যাপারে কেরু এন্ড কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ মোশারফ হোসেন লিগ্যাল নোটিশ পাওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, আমি তো নতুন নিয়োগ করছি না তাহলে কেন কোটা সংরক্ষণের কথা আসছে। আমরা তো চিনিকলে কর্মরতদের বিভিন্ন বিভাগের শূন্য পদে সমন্বয় করছি। তিনি নতুন নিয়োগের ক্ষেত্রে অবশ্যই সরকারি বিধি ও মুক্তিযোদ্ধা কোটা যথাযথভাবে সংরক্ষণ করা হবে বলে উল্লেখ করেন। কর্মরত অনেক মুক্তিযোদ্ধা সন্তানও এই সমন্বয়ের আওতায় আসবেন বলেও তিনি জানান।





আর্কাইভ